মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C

দর্শনীয় স্থান

ক্রমিক নাম কিভাবে যাওয়া যায় অবস্থান
দর্শনীয় স্থান ১. বঙ্গবন্ধু সাফারী পার্কঃ ঢাকা থেকে ময়মনসিংহ অথবা শ্রীপুরগামী বাসে করে বাঘেরবাজার নেমে ০৩ কিঃ মিঃ রিক্সায় অথবা পায়ে হেটে বঙ্গবন্ধু সাফারী পার্কে যাওয়া যায়। ২. নক্ষত্রবাড়িঃ শ্রীপুর উপজেলা থেকে ১৫ কিঃ মিঃ দূরে নক্ষত্রবাড়ি রিসোর্ট সেন্টার।
বাসরী রাজেন্দ্রপুর হয়ে ২০০ গজ উত্তর দিকে যেয়ে পশ্চিমে রাস্তার দক্ষিণ পাশে ৤
ন্যাশনাল পার্ক ঢাকা থেকে বাসে জয়দেবপুর চৌরাস্তা হয়ে ময়মনবিংহ বোডে ৮ কিলো দূরত্বে অবস্থিত। ট্রেনেও যাওয়া যায়।
নুহাস পল্লী ঢাকা থেকে সড়ক পথে ময়মনসিংহ রোডে হুতাপাড়া হয়ে পশ্চিম দিকে পিরুজালী ইউনিয়নে।
ভাওয়াল (রাজপ্রাসাদ) রাজবাড়ী • জিরো পয়েন্ট হতে গাজীপুর গামী বাসে শিববাড়ীতে নেমে রিক্সাযোগে রাজবাড়ী আসা যায়।
ভাওয়াল রাজ শ্মশানেশ্বরী জিরো পয়েন্ট হতে গাজীপুর গামী বাসে শিববাড়ীতে নেমে রিক্সাযোগে আসা যায়।
জাগ্রত চৌরঙ্গী জিরো পয়েন্ট হতে ঢাকা-ময়মনসিংহ রোডে গাজীপুর গামী বাসে আসা যায়।
বিভিন্ন দর্শনীয় স্থান গাড়ী ও বাসে
হযরত শাহপরান মাজার(রাঃ) এর মাজার , আজমতপুর কলেজ, নরুন ঈদগাহ মাঠ, ছাতিয়ানী চিন মেলা। মাজার= জাঙ্গালিয়া ইউনিয়ন পরিষদ থেকে টেম্পু, আটোরিক্সা দিয়ে নরম্নন বাজার, নরম্নন বাজার থেকে অল্প উত্তরে এই মাজার অবস্থিত। ভাড়া ৩০ টাকা। আজমতপুর কলেজ= আওড়াখালি বাজার থেকে ১.৫ মাইল উত্তরে।১৫ টাকা রিক্সা ভাড়া। নরুন ঈদগাহ মাঠ= নরুন বাজার থেকে উত্তরে, এখানে সমগ্র গ্রামের লোক জন এক সাথে ঈদের নামাজ পড়ে। এটি এই ইউনিয়নে ঐতিহ্য। ৪০ টাকা। ছাতিয়ানী চিন মেলাঃ জাঙ্গালীয়া ইউনিয়নের সর্ব বৃহৎ ঐতিহ্য ছাতিয়ানীর চিন মেলা, এটি ইউ ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডে অবস্থিত। প্রতিবছর চৈত্র মাসের শেষ দিন এবং পহেলা বৈশাখের ঠিক আগের দিন গাজীপুর, নারানগঞ্জ, নরসিংদী, ভৈরব, কিশোরগঞ্জ, ময়মিনসিংহ,ঢাকা সহ আরো অনেক জায়গা থেকে হাজার হাজার লোকের আগমন গঠে ঐতিহাসিক এই ছাতিয়ানী চিন-মেলায়। সকাল থেকে শতশত মানুষের আগমন গঠতে গঠতে বিকালের দিকে এক জরিপে বলা হয়েছে যে, প্রায় ১০-১২ হাজার লোকের আগম গঠেছে আজকের এই মেলায়। এই মেলার অন্যতম আকর্ষন পাঠা বলি। প্রায় ২ কিলোমিটার জায়গা জুড়ে এই মেলার চাপ পড়ে। সকাল ১০টার পর আর আর কেউ মেলায় গাড়ি নিয়ে জেতে পারে নাই। সকাল থেকে শত শত বাস, মিনিবাস, মেক্সি, সি.এন.জি, মটর সাইকেল, অটোরিক্সা, রিকসা, সাইকেল এবং দুর দুরান্ত থেকে মানুষ পায়ে হেটে মেলায় জোগ দেয়। একটি জিনিস লক্ষ করলাম কার আগে কে যাবে দুঃখ জনক হল আজ সারা দিনে প্রায় ৪-৫টি একসিডেন্ট হয়েছে। এর মধ্যে আমার কেমেরায় ধরা পাড়া একটি চিত্র তুলে ধরলাম। গাজীপুর তথা আশেপাশের কয়েক জেলার মধ্যে এটি হিন্দুদের সর্ববৃহৎ মেলা বিধায় জাঙ্গালীয়া ইউনিয়নবাসী এই মেলাকে নিয়ে গর্ববোধ করে। আওড়াখালি বাজার থেকে ২০ টাকা রিক্সাভাড়া।
১০ দর্শনীয় স্থান
১১ জয়কালী মন্দির কাপাসিয়া সদর উপজেলা হইতে পায়ে হেঁটে অতি সহজে যাওয়া যায়। কাপাসিয়া বাসস্ট্যান্ড হইতে রিক্সা যোগে ভাড়া ১০টাকা।
১২ বঙ্গবন্ধু সাফারী পার্ক এবং নুহাশ পল্লী ঢাকা- হতে সড়ক পথে উত্তর দিকে গাজীপুর চৌরাস্তা হয়ে ময়মনসিংহ মহাসড়ক হতে উত্তর পশ্চিম দিকে 'নুহাশ পল্লী'র সন্নিকটে (প্রায়) ৩০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত।
১৩ CHUTI resort & picnic spot Sukundi, Amtoli, Joydebpur, Gazipur. 7.5 km distance from Gazipur Chowrastha
১৪ সুলতানপুর দরগাপাড়া শাহী মসজিদ ঢাকা থেকে বাসে করে সোজা টোকে আসতে হবে।তারপর টোক থেকে অটো করে সোজা সুলতানপুর শাহী মসজিদের কাছে।
১৫ এ জেলার পিকনিক স্পটের তালিকা