মেনু নির্বাচন করুন

১ম সশস্ত্র প্রতিরোধ দিবস উদযাপন ১৯ মার্চ ২০১৮

১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধের প্রথম সশস্ত্র প্রতিরোধ দিবস ১৯ মার্চ।

ঐতিহাসিক সাতই মার্চে বঙ্গবন্ধুর ভাষণের পর দেশ স্বাধীনতা ও মুক্তির আন্দোলনে যখন উত্তাল তখনই প্রথম পাক হানাদার বাহিনীর কাছ থেকে অস্ত্র নিয়ে প্রতিরোধ যুদ্ধ গড়ে তোলা হয়। এ ঘটনার পর সারাদেশে শ্লোগান ওঠে ‘জয়দেবপুরের পথ ধর, বাংলাদেশ স্বাধীন কর।” এই দিনটি আমাদের স্বাধীনতার যুদ্ধের ইতিহাসে এক অনন্য দিন।১৯৭১ সালের ১৯ মার্চ মহান স্বাধীনতা যুদ্ধের প্রাক্কালে জয়দেবপুরের সংগ্রামী জনতা পাক-হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে সশস্ত্র প্রতিরোধ শুরু করেছিল। ওইদিন পাক হানাদার বাহিনীর গুলিতে গাজীপুরের হরমুত, মনু খলিফা ও কিশোর নেয়ামত শহীদ হন। দিবসটি উপলক্ষে ঢাকা গাজীপুরে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। গাজীপুর জেলা শহরে শহীদ বরকত স্টেডিয়ামে এক সংবর্ধনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ১৯ মার্চ গাজীপুরে শহীদদের স্মরণে আয়োজিত স্মরণ সভা ও জীবিতদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

১৯ মার্চের বীরত্বকে অমর করে রাখতে ১৯৭২-১৯৭৩ সালে গাজীপুরের চান্দনা চৌরাস্তায় একটি ভাস্কর্য নির্মাণ করা হয়। জাগ্রত চৌরঙ্গী নামের এই ভাস্কর্য মুক্তিযুদ্ধের প্রথম ভাস্কর্য।


Share with :

Facebook Twitter