মেনু নির্বাচন করুন
ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান

ভাওয়াল রাজার শশ্মান ঘাট

ধরণ

স্মশানঘাট

ইতিহাস

গাজীপুরে ভাওয়াল রাজাদের অন্যতম কীর্তি ভাওয়াল শ্মশানঘাট। এই শ্মশান মঠ গাজীপুর ও এর আশপাশের মানুষদের কাছে অবসর যাপনের অন্যতম স্থান।

গাজীপুর চৌরাস্তা থেকে ৪ কিলোমিটার পূর্ব দিকে এই শ্মশানঘাট অবস্থিত। কিছুদিন আগেও নানা গাছ গাছালির ভীড়ে শ্মশান ভূমির প্রবেশ স্থল থেকে মঠ গুলো দেখা যেত না। কিন্তু এখন গাছগুলো কেটে ফেলার ফলে সামনে পায়ে হেটে কয়েকগজ এগুলেই চোখে পড়ে বিষ্ময়কর স্থাপত্য।

১৯৫১ সালে কালী নারায়নের সময়ই ভাওয়াল শ্মশান মঠ নির্মিত হয়। আটটি মঠের মধ্যে সামনের তিনটি মঠের নির্মানশৈলী সাধারন। দেখতে প্রায় একই রকম। কিন্তু বাকি পাচটি মঠের নির্মানশৈলী চিত্তাকর্ষক। এদের মধ্যে একটি মঠ সবচেয়ে উচু। সবচেয়ে বড় মঠটি নির্মিত হয়েছে ভাওয়াল জমিদারির অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা কৃষ্ণ নারায়ন রায়ের উদ্দেশ্যে। উনিশ শতকের শেষের দিকে নির্মিত এই মঠ গুলো কালের সাক্ষী হয়ে আজও টিকে আছে।

ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের ছবি

10c0f5935aec3df1b9077609c03488c1.jpeg 10c0f5935aec3df1b9077609c03488c1.jpeg
9fda4e6279251ee01bc3eec3fcb20c6b.jpeg 9fda4e6279251ee01bc3eec3fcb20c6b.jpeg

প্রতিষ্ঠান প্রধানের নাম

কালী নারায়ন

প্রতিষ্ঠান প্রধানের পদবি

ভাওয়াল জমিদার

প্রতিষ্ঠান প্রধানের মোবাইল

০০০০০০০০০০০

প্রতিষ্ঠান প্রধানের ছবি



Share with :

Facebook Twitter